ফরিদপুরের বরকত ও রুবেল ২৪৫০ বিঘা জমির মালিক

ফরিদপুরের বরকত ও রুবেল ২৪৫০ বিঘা জমির মালিক

সাজ্জাদ হোসেন ওরফে বরকত ও ইমতিয়াজ হাসান ওরফে রুবেলের নেশা ছিল জমি দখল। যে জমিই পছন্দ হতো, নামমাত্র দামে তাঁরা নিয়ে নিতেন। নিজের সন্ত্রাসী বাহিনী ও পুলিশ বাহিনীকেও কাজে লাগাতেন। প্রয়োজনে জমির মালিককে পুলিশ দিয়ে গ্রেপ্তার করাতেন। এভাবে সাত বছরে তাঁরা ২ হাজার ৪৫০ বিঘা জমির মালিক হয়েছেন। দুই ভাইয়ের নামে যে প্রায় আড়াই হাজার বিঘা জমি কেনা হয়েছে, তার বেশির ভাগই ফরিদপুর শহর ও আশপাশের। শুধু জমি নয়, তাঁদের নামে পাওয়া গেছে ৪৯টি ব্যাংক হিসাবের তথ্য। এসব হিসাবে তিন হাজার কোটি টাকার বেশি লেনদেন হয়েছে। ফরিদপুর শহর আওয়ামী লীগ ও অন্যান্য অঙ্গ সংগঠনের সঙ্গে যোগাযোগ করে তথ্য পাওয়া গেছে  ‘গডফাদার’–এর নাম যাঁর আশ্রয়-প্রশ্রয়ে তাঁরা ফুলেফেঁপে উঠেছেন। টেন্ডারবাজি, দখলবাজি, চাঁদাবাজি—সব কাজের জন্য গডফাদারকে দিতে হয়েছে ২ শতাংশ হারে কমিশন। আলোচিত এই গডফাদার হলেন সাবেক মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেনের ভাই এবং জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি খন্দকার মোহতেশাম হোসেন ওরফে বাবর।